হায়াতুল আম্বিয়া

৳ 100

নবী-রাসূলদের প্রতি বিশ্বাস স্থাপন ঈমানের মৌলিক অংশের অন্তর্ভুক্ত। নবীদের প্রতি বিশ্বাসের অর্থ কুরআন ও সুন্নাহয় তাদের বিষয়ে যা বিবৃত হয়েছে তাতে বিশ্বাস করা এবং শেষ নবী মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আল্লাহর পক্ষ থেকে যা নিয়ে এসেছেন বলে প্রমাণিত তা বিশ্বাস ও গ্রহণ করা। একে পরিভাষায় ঈমান বিরুসুল বা নবীদের প্রতি ঈমান বলে। ঈমান বিরুসুলের কিছু বিষয় রয়েছে মৌলিক আর কিছু শাখাগত। মৌলিক বিষয়ের কোন একটি অংশ অস্বীকার করা বা ভুল ব্যাখ্যা করা ঈমান নষ্ট করে দেয়। আর শাখাগত বিষয়ের ক্ষেত্রেও ভুল ব্যাখ্যা আহলুস সুন্নাহ থেকে বিচ্যুতির কারণ এবং ক্ষেত্রবিশেষ ঈমানের জন্যও মারাত্মক ক্ষতিকর গণ্য হয়। বিচ্যুতদেরকে পরিভাষায় আহলুল বিদআহ বা বিদাতী বলা হয়।

হায়াতুল আম্বিয়া বা নবীদের মৃত্যুপরবর্তী কবরের বিশেষ জীবনের কথা কুরআন-সুন্নাহয় বিবৃত হয়েছে। এর একটি বিশেষ ধরন ও প্রকৃতি আহলুস সুন্নাহর কাছে স্বীকৃত। এর ভুল ব্যাখ্যা চরম ভ্রষ্টতা ও মারাত্মক বিভ্রান্তির কারণ। আমরা একালে হায়াতুল আম্বিয়া বিষয়ে দুই ধরনের প্রান্তিকতা লক্ষ্য করছি। এক শ্রেণী হায়াতুল আম্বিয়া বিশ্বাসের মূলতত্ত্ব না বুঝে এর উপর ভিত্তি করে বাড়াবাড়ির চরম সীমা অতিক্রম করে বিভিন্ন বিভ্রান্তির সৃষ্টি করছে, যার কোন কোনটি শিরক পর্যন্ত পৌঁছে দেয়। আরেক শ্রেণী এ বিষয়ে বাড়াবাড়ি থেকে বাঁচার নামে মধ্যপন্থা ও সঠিক পন্থা উপেক্ষা করে হায়াতুল আম্বিয়ার মূল বিশ্বাসকেই অস্বীকার করে বসে। দুটো শ্রেণীই মূলত এক্ষেত্রে আহলুস সুন্নাহর বিশ্বাস থেকে বিচ্যুত। এখানেও মধ্যপন্থা ও শ্রেষ্ঠপন্থাই আহলুস সুন্নাহর আদর্শ।

লেখক

প্রকাশনী

ভাষা

বাংলা

বাইন্ডিং

পেপারব্যাক

পৃষ্ঠা

80

নবী-রাসূলদের প্রতি বিশ্বাস স্থাপন ঈমানের মৌলিক অংশের অন্তর্ভুক্ত। নবীদের প্রতি বিশ্বাসের অর্থ কুরআন ও সুন্নাহয় তাদের বিষয়ে যা বিবৃত হয়েছে তাতে বিশ্বাস করা এবং শেষ নবী মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আল্লাহর পক্ষ থেকে যা নিয়ে এসেছেন বলে প্রমাণিত তা বিশ্বাস ও গ্রহণ করা। একে পরিভাষায় ঈমান বিরুসুল বা নবীদের প্রতি ঈমান বলে। ঈমান বিরুসুলের কিছু বিষয় রয়েছে মৌলিক আর কিছু শাখাগত। মৌলিক বিষয়ের কোন একটি অংশ অস্বীকার করা বা ভুল ব্যাখ্যা করা ঈমান নষ্ট করে দেয়। আর শাখাগত বিষয়ের ক্ষেত্রেও ভুল ব্যাখ্যা আহলুস সুন্নাহ থেকে বিচ্যুতির কারণ এবং ক্ষেত্রবিশেষ ঈমানের জন্যও মারাত্মক ক্ষতিকর গণ্য হয়। বিচ্যুতদেরকে পরিভাষায় আহলুল বিদআহ বা বিদাতী বলা হয়।

হায়াতুল আম্বিয়া বা নবীদের মৃত্যুপরবর্তী কবরের বিশেষ জীবনের কথা কুরআন-সুন্নাহয় বিবৃত হয়েছে। এর একটি বিশেষ ধরন ও প্রকৃতি আহলুস সুন্নাহর কাছে স্বীকৃত। এর ভুল ব্যাখ্যা চরম ভ্রষ্টতা ও মারাত্মক বিভ্রান্তির কারণ। আমরা একালে হায়াতুল আম্বিয়া বিষয়ে দুই ধরনের প্রান্তিকতা লক্ষ্য করছি। এক শ্রেণী হায়াতুল আম্বিয়া বিশ্বাসের মূলতত্ত্ব না বুঝে এর উপর ভিত্তি করে বাড়াবাড়ির চরম সীমা অতিক্রম করে বিভিন্ন বিভ্রান্তির সৃষ্টি করছে, যার কোন কোনটি শিরক পর্যন্ত পৌঁছে দেয়। আরেক শ্রেণী এ বিষয়ে বাড়াবাড়ি থেকে বাঁচার নামে মধ্যপন্থা ও সঠিক পন্থা উপেক্ষা করে হায়াতুল আম্বিয়ার মূল বিশ্বাসকেই অস্বীকার করে বসে। দুটো শ্রেণীই মূলত এক্ষেত্রে আহলুস সুন্নাহর বিশ্বাস থেকে বিচ্যুত। এখানেও মধ্যপন্থা ও শ্রেষ্ঠপন্থাই আহলুস সুন্নাহর আদর্শ।

প্রায় দেড় শতাব্দির অধিক কাল ধরে, বিশেষ করে ভারত উপমহাদেশসহ পুরো দুনিয়াতেই ইসলাম ও ইসলামী শিক্ষার প্রচার-প্রসার ও ইসলামের ভাবধারা সংরক্ষণে দারুল উলূম দেওবন্দের সাফল্য ও অবদান অনস্বীকার্য। এ কারণে সারা বিশ্বেই দারুল উলূম দেওবন্দের কর্মপন্থার বিপুল পরিমাণ অনুসারী আছেন, যাদেরকে অনেকে দেওবন্দী বলে থাকেন। তারা নিজেদেরকে দেওবন্দ এর সাথে সম্পৃক্ত রাখাকে নিরাপদ মনে করেন এবং এ পরিচয়ে গর্ববোধ করেন বটে, কিন্তু বিজ্ঞজনেরা দেওবন্দী নাম ধারণ করার চেয়ে আহলুস সুন্নাহ নামেই তৃপ্তি অনুভব করেন। কারণ তারা সুদীর্ঘ সময় ধরে মূলত এতদাঞ্চলে আহলুস সুন্নাহর আকীদা-বিশ্বাস ও আদর্শকে যথাযথভাবে আঁকড়ে ধরে রাখার জন্য অবিরত সংগ্রাম করে যাচ্ছেন। তাই তাদের আসল পরিচয়ই আহলুস সুন্নাহ। তাছাড়া দেওবন্দী নাম ধারণের কারণে অনেকের মনে ধারণা হতে পারে যে, আহলুস সুন্নাহর বিপরীতে দেওবন্দীরা একটি ভিন্ন ফিরকা বা দল। তাই এটা স্পষ্ট থাকা চাই যে, আহলুস সুন্নাহর আকীদা-বিশ্বাস ও আদর্শই দেওবন্দ ও দেওবন্দীদের অবলম্বন। এটিই খাঁটি ইসলামী বিশ্বাস ও আদর্শ।

আশ্চর্যের বিষয় হল, ‘হায়াতুল আম্বিয়া’ বিশ্বাসের ক্ষেত্রে ভারত উপমহাদেশে প্রান্তিক দুটি দলই মধ্যপন্থী ও আহলুস সুন্নাহর মতাদর্শে অটল দেওবন্দের অনুসারীদের নামে ইচ্ছায় বা অনিচ্ছায় বিভিন্ন ভুল কথা চাপিয়ে দিয়ে নিজেদের প্রান্তিকতা ঢাকার অপচেষ্টা করে থাকে। যা সত্য সন্ধানী লোকদের জন্য চরম বিভ্রান্তিকর।

‘হায়াতুল আম্বিয়া’ আকীদার ক্ষেত্রে কুরআন-সুন্নাহর সুস্পষ্ট বক্তব্য, আহলুস সুন্নাহর ব্যাখ্যা এ পুস্তিকার মূল উদ্দেশ্য। পাশাপাশি এ বিষয়ে প্রান্তিক মত অবলম্বনকারীদের ভুল বিশ্বাস চিহ্নিত করা এবং দেওবন্দীদের সঠিক বিশ্বাসেরও সপ্রমাণ উপস্থাপন করা হয়েছে এতে।

বিশেষত এতে স্থান পেয়েছে বিষয়সংশ্লিষ্ট আয়াত ও হাদীসের নির্ভরযোগ্য ব্যাখ্যা এবং অপব্যাখ্যার খণ্ডন। প্রাসঙ্গিকভাবে স্বপ্ন, কাশফ-ইলহাম ও কারামাত বিষয়ে সংক্ষেপে আহলুস সুন্নাহর আকীদাও তুলে ধরা হয়েছে।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “হায়াতুল আম্বিয়া”

১ম ধাপ: পছন্দের বইটিকে CART এ এড করুন। অর্থাৎ 'এখনই কিনুন' বাটনে ক্লিক করুন
২য় ধাপ: এবার আপনার CART পেজ এ যান। (ওয়েবসাইট এর উপরের ডান কোণায় CART মেনুতে যান এবং VIEW CART এ ক্লিক করুন)
৩য় ধাপ: আপনার কার্ট আইটেমগুলো দেখে নিন এবং সবকিছু ঠিক থাকলে Proceed to Checkout এ চলে যান।
৪র্থ ধাপ: আপনার শিপিং ঠিকানা ও বিবরণ দিন এবং পেমেন্ট সম্পন্ন করুন
৫ম ধাপ: এরপর PLACE ORDER এ ক্লিক করুন।

একাধিক বই কিনতে: যতগুলো বই কিনতে চান সবগুলো CART এ এড করুন, তারপর চেকআউট করুন।

আপনি অর্ডার করার পর, আমরা পেমেন্ট চেক করবো এবং আপনার বই/বইগুলো ডেলিভারি দেয়া হবে। যে কোনও প্রকার হেল্প এর জন্য আমাদের ফোন অথবা মেইল করুন।