তোমাকে ভালোবাসি হে নবী

৳ 70

গুরুদত্ত সিং। বার, এট ল’ এডভোকেট (লাহোর হাইকোর্ট)- নাম শুনেই বুঝা যাচ্ছে তিনি মুসলিম নন। তিনি তার মূল কিতাবে নিজের পরিচয় দিয়েছেন এভাবে- ইসলামের “নবীর প্রতি অনুরাগী”। একজন শিখ “গুরুদত্ত সিং” এর কলমে রচিত এই কিতাবটি।

(tomake valobashi he nobi)

লেখক

প্রকাশনী

দেশ

ভাষা

হৃদয়ের আকুতি থেকে কিছু কথা লেখকের ভাষায় তুলে ধরছি।
সত্যের আলো ছড়াতে, পুন্যের পথ দেখাতে এক মহামানবের আবির্ভাব হলো।
তাঁর শুভ দর্শনে দৃষ্টি যাদের প্রেমমুগ্ধ হলো এবং হৃদয় যাদের ভালবাসায় স্নিগ্ধ হলো জনম তাদের সার্থক হলো, জীবন -স্বপ্ন তাদের সফল হলো।
এ পরশমণি পরশ -সৌভাগ্য যারা লাভ করলো, খাঁটি সোনার চেয়ে খাঁটি তারা হলো।
এ স্বর্গ -পুষ্পের সান্নিধ্য -সৌরভ যারা পেলো বিশ্ব -বাগানে তারা গোলাবের খোশবু ছড়ালো।

উষর মরুর বাসিন্দাদের খুব আক্ষেপের সাথে বললো,
‘আকারে ইনসান, প্রকারে শয়তান’
এই তো ছিলো তোমাদের পহচান’
অথচ সারা বিশ্বে আজ তোমাদেরই জয়গান, তোমাদেরই শওকত –শান।
বলো না কোন সে প্রতিভা ছিলো তোমাদের মাঝে, কোন অমৃতজলের সন্ধান ছিলো তোমাদের কাছে?
যার ফলে সময়ের ব্যবধানে ‘রাহজান’ থেকে হয়ে গেলে ‘রাহবার ‘।

ভারত মাতা কে নিয়ে খুবই আফসোস করে বললেন,
হে দুর্ভাগিনী ভারত মাতা!
ভগবানের অশেষ অকৃপণ দানে “অশেষ আশীর্বাদে তুমি ধন্য।
হিমালয় তোমার গর্ব, আগ্রা, দিল্লী, আজমীর ও মূলতান তোমার গৌরব।
কিন্তু জাবালে নূরের ঐশী নূর তো তোমায় দিলেন না!
ইসলাম ও মানবতার কাবা -কেবলা তো তোমার ভাগ্যে জুটলো না!

আবার ভারত মাতা কে স্বান্তনা দিয়ে বলছেন তিনি….
দু:খ করো না, চোখের জলে বুক ভাসিও না।
কেননা ভগবানের দান তো সম্পদে কেনা যায় না আবার ছিনিয়ে ও আনা যায়না।
তাই ভগবানের বিচার মেনে ধৈর্য না ধরে উপায় কি বলো!

আমাদের প্রিয় নবী রাসূলে কারীম (সাঃ) এর জন্মলগ্ন থেকে তার “সর্বোত্তম বন্ধুর সান্নিধ্যে যাওয়ার আগ পর্যন্ত পরিপূর্ন জীবন বৃত্তান্ত বর্ণনা করা হয়েছে।

রাসূলের কষ্টে তিনি অশ্রু ঝরিয়েছেন,
রাসূলের আনন্দে তিনি মুচকি হেসেছেন,
আমাদের রাসূল( সাঃ) যে একজন উত্তম স্বামী, একজন উত্তম পিতা, একজন আদর্শ বন্ধু, একজন আদর্শ শিক্ষক মানবজাতির জন্য।
তা তিনি প্রতিটি বাক্যে খুব সুমধুর শব্দ চয়নে উল্লেখ করেছেন।

এত আবেগ দিয়ে এত মায়া মমতা দিয়ে রাসূলের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করা হয়েছে।
এক কথায় অপূর্ব।
যেমন ভক্তি ভালোবাসার আবেগ -উচ্ছাস।
তেমনি ভাষা ও সাহিত্যের ছন্দময় প্রকাশ।
হৃদয়ের উৎস থেকে নবী প্রেমের একটি ঝর্নাধারা যেন কল্লোল ধ্বনি তুলে বয়ে চলছে।
ভাবের তরঙ্গে, আবেগের উচ্ছাসে, শব্দের সুরঝংকারে এবং ভাষার নৃত্য ছন্দে আমি ও যেন দোল খেতে খেতে এগিয়ে চলেছি।

‘পর’ যদি আমাদের নবীকে এমন করে ভালোবাসতে পারে, এমনভাবে ভক্তি -শ্রদ্ধার অর্ঘ্য “নিবেদন করতে পারে,
তাহলে আপন যারা তাদের কেমন হওয়ার কথা ছিলো!
অথচ তারা কেমন হয়েছে!

আমার শুধু একটি প্রশ্ন —


একজন অমুসলিম নবী প্রেমের এমন “সুরভিত পুস্প ” কীভাবে প্রষ্ফুটিত করতে পারেন!
আর যিনি পারেন তিনি কী করে অমুসলিম থাকেন!
নাকি বিদায় গ্রহণের পূর্বে তিনি ইসলাম গ্রহণ করেছিলেন??


তাই যেন হয়।

জীবনে একবার হলে ও কিতাব টি পড়ে দেখার আমন্ত্রণ জানিয়ে শেষ করছি।

1 review for তোমাকে ভালোবাসি হে নবী

  1. yipiash

    Good One.

Add a review

১ম ধাপ: পছন্দের বইটিকে CART এ এড করুন। অর্থাৎ 'এখনই কিনুন' বাটনে ক্লিক করুন
২য় ধাপ: এবার আপনার CART পেজ এ যান। (ওয়েবসাইট এর উপরের ডান কোণায় CART মেনুতে যান এবং VIEW CART এ ক্লিক করুন)
৩য় ধাপ: আপনার কার্ট আইটেমগুলো দেখে নিন এবং সবকিছু ঠিক থাকলে Proceed to Checkout এ চলে যান।
৪র্থ ধাপ: আপনার শিপিং ঠিকানা ও বিবরণ দিন এবং পেমেন্ট সম্পন্ন করুন
৫ম ধাপ: এরপর PLACE ORDER এ ক্লিক করুন।

একাধিক বই কিনতে: যতগুলো বই কিনতে চান সবগুলো CART এ এড করুন, তারপর চেকআউট করুন।

আপনি অর্ডার করার পর, আমরা পেমেন্ট চেক করবো এবং আপনার বই/বইগুলো ডেলিভারি দেয়া হবে। যে কোনও প্রকার হেল্প এর জন্য আমাদের ফোন অথবা মেইল করুন।